সৌম্য, রিয়াদের তাণ্ডবে দিশেহারা ঢাকা

ফেব্রুয়ারি ১০ ২০২৪, ২০:৩১

নিজস্ব প্রতিবেদক, বরিশাল: ১৯ রানে তিন উইকেট হারানো ফরচুন বরিশাল যেভাবে ঘুরে দাঁড়িয়ে ১৮৯ রানের সংগ্রহ পেল, অবিশ্বাস্য। যার পুরোটাই মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, সৌম্য সরকারের অনবদ্য ব্যাটিংয়ে। সৌম্য-রিয়াদময় এক ইনিংস শেষ করে ফরচুন বরিশাল পেল ১৮৯ রানের সংগ্রহ। তাদের ১৩৯ রানের জুটি এবারের বিপিএলে সর্বোচ্চ। ৬ ছক্কা ও ৪ চারের ইনিংসে সৌম্য অপরাজিত থাকেন ৭৫ রানে।

মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ৪৭ বলে খেললেন ৭৩ রানের কার্যকর এক ইনিংস। সৌম্য সরকার অবশ্য ইনিংস শেষ করে মাঠ ছেড়েছেন। তার ব্যাট থেকে ৭৫ রান আসে ৪৯ বলে। শেষদিকে ১৯ রান করেন শোয়েব মালিক। বরিশালের পাওয়া ১৮৯ রানের ১৪৮ রানই আসে রিয়াদ-সৌম্যর ব্যাট থেকে।

টসে জিতে আগে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত জানান, বরিশালের দলনেতা তামিম ইকবাল। কিন্তু ব্যাট হাতে নেমে চরম বিপর্যয়ে পড়ে তার দল। আরও একবার দুর্দান্ত ঢাকার পেসার শরিফুল ইসলাম নিজের প্রথম ওভারেই শিকার করলেন উইকেট। ডিপ স্কয়ার লেগে দাঁড়িয়ে দুর্দান্ত এক ক্যাচে তামিমের পতন ঘটান এসএম মেহেরব।

৪ বল খেলা তামিমের রানও ৪। পরের ওভারে তাসকিন আহমেদ এসে দখলে নেন জোড়া শিকার। ওভারের প্রথম বলেই ১০ রানে থাকা আহমেদ শেহজাদকে অ্যালেক্স রসের হাতে বানান ক্যাচ। পঞ্চম ডেলিভারিতে ইনসাইড এজে স্টাম্প ভাঙে মুশফিকুর রহিমের। এদিন ১ রানের বেশি করতে পারেননি বরিশালের এই অভিজ্ঞ ব্যাটার।

তাসকিন, শরিফুলের পেস আগুনে পুড়ে ১৯ রান করতেই বরিশাল হারায় ৩ উইকেট। টপ অর্ডারের ব্যাটিং ব্যর্থতায় ফরচুন বরিশাল যখন হতাশার সমুদ্রে ডুবে যাচ্ছিল, তখন আগমন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ আর সৌম্য সরকারের। দুর্দান্ত ঢাকার বোলিং লাইন আপের ওপর পালটা আক্রমণ চালান। এই দুইয়ের দাপুটে ব্যাটিংয়ে মুহূর্তেই মোমেন্টাম চলে আসে বরিশালের পক্ষে। ১৯ রানে ৩ উইকেট হারালেও সৌম্য-রিয়াদের কল্যাণে পাওয়ার প্লের ৬ ওভারে বরিশালের স্কোরবোর্ডে আসে ৪৬ রান।

ব্যক্তিগত ৭ রানেই সৌম্য ফিরতে পারতেন প্যাভিলিয়নে, যদি না তাসকিন আহমেদ নিজের বলে ফিরতি ক্যাচ লুফে নিতেন। নতুন জীবন পাওয়া সৌম্য সুযোগটা কাজে লাগান দারুণভাবে। দলকে এনে দেন দুনিয়ার সব স্বস্তি। স্ট্রোক্সের ফোয়ারা ছুটিয়ে ৩২ বলে পঞ্চাশ ছুঁয়েছেন সৌম্য সরকার। যা এবারের বিপিএলে সৌম্য সরকারের প্রথম পঞ্চাশোর্ধ ইনিংস। ৩৭ বলে ফিফটি স্পর্শ করেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। এটি এবারের বিপিএলে রিয়াদের দ্বিতীয় ফিফটি।

মাইলফলক স্পর্শ করার পর রিয়াদ যেন আরও ভয়ংকর হয়ে ওঠেন। ঢাকার বোলারদের ওপর রিয়াদ রীতিমতো ঝড় বইয়ে দেন। ৬৬ বলে রিয়াদ-সৌম্য জুটির শতরান আসে। তবে রিয়াদকে থামাতে আবারও অ্যাকশনে আসেন শরিফুল ইসলাম। নিজের দ্বিতীয় স্পেল করতে এসেই শরিফুল তুলে নেন বিগ উইকেট।

থামে রিয়াদের অনবদ্য এক ইনিংস। ৭৩ রান করেন মাত্র ৪৭ বলে। যা তিনি সাজান ৭ চার ও ৩ ছক্কায়। ৭৩ রানের ইনিংসই এবারের বিপিএলে রিয়াদের সর্বোচ্চ। অভিজ্ঞ এই ব্যাটারের বিদায়ে ভাঙে ১৩৯ রানের জুটি। তার আগেই অবশ্য ছুঁয়ে যায় রেকর্ড, এবারের বিপিএলে এটিই এখন পর্যন্ত যে কোনো উইকেটে সর্বোচ্চ রান।

রিয়াদের বিদায়ের পর শোয়েব মালিককে নিয়ে ইনিংসের বাকি পথ শেষ করে আসেন সৌম্য সরকার। ২০ ওভার শেষে ১৮৯ রানের বড় সংগ্রহ পায় ফরচুন বরিশাল। সৌম্য সরকার ৭৫ রানে অপরাজিত থেকে মাঠ ছাড়েন। ৪৮ বলে ৬ ছক্কা ও ৪ চারে এই অনবদ্য ইনিংস সাজান সৌম্য। শেষবেলায় শোয়েব মালিকের ব্যাট থেকে ১০ বলে আসে ১৯ রান।

সংবাদটি শেয়ার করুন....

আমাদের ফেসবুক পাতা

আজকের আবহাওয়া

পুরাতন সংবাদ খুঁজুন

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯  

এক্সক্লুসিভ আরও