ঘূর্ণিঝড় সিত্রাংয়ের ৩ দিন পরও বিদ্যুৎহীন লালমোহনবাসী

অক্টোবর ২৮ ২০২২, ২৩:০০

নিজস্ব প্রতিবেদক, বরিশাল: দ্বীপ জেলা ভোলার লালমোহনে ঘূর্ণিঝড় সিত্রাংয়ের তিন দিন পরও বিদ্যুৎহীন রয়েছে প্রত্যন্ত অঞ্চলের বাসিন্দারা। এতে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন গরীব ও অসহায় অটো ও বোরাকচালকরা।

বিপাকে রয়েছেন মোবাইল ব্যবহারকারীরাও। বিদ্যুৎ না থাকায় মোবাইল নেটওয়ার্কের সমস্যা তীব্র আকার ধারণ করেছে। এতে দুর্ভোগে পড়েছেন উপজেলার স্থানীয় বাসিন্দারা।

জানা গেছে, বিদ্যুৎ না থাকায় অটো ও বোরাকচালকরা ব্যাটারিতে চার্জ দিতে পারছেন। এতে বাধ্য হয়ে বন্ধ রাখতে হচ্ছে তাদের উপার্জনের একমাত্র মাধ্যম অটো ও বোরাকগুলো।

সংসার চালাতে তাদের হিমশিম খেতে হচ্ছে। নিতে হচ্ছে বিভিন্নজন থেকে ঋণ। বিদ্যুৎ না থাকায় বিপাকে পড়েছেন মোবাইল ব্যবহারকারীরাও।

তবে এ সুযোগকে কাজে লাগিয়ে সুবিধা ভোগ করছেন স্থানীয় বাজারের জেনারেটরের ব্যবসায়ীরা। তারা মোবাইল প্রতি চার্জে ২০/৩০ টাকা করে নিচ্ছেন।

লালমোহন পল্লীবিদ্যুতের ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার এ কে এম ফজলুল হক দৈনিক নয়া দিগন্তকে বলেন, ঝড়ের তাণ্ডবে উপজেলার বিভিন্ন স্থানে বিদ্যুতের তার ছিঁড়ে গেছে।

সেজন্য বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ রয়েছে। সকাল থেকেই আমাদের কর্মীরা বিদ্যুতের লাইন মেরামতের কাজ করছেন। পৌর সভার বিদ্যুৎ সংযোগ চালু করা সম্ভব হয়েছে। শিগগিরই সকল লাইনের সংযোগ চালু করা সম্ভব হবে।

উল্লেখ্য, গত সোমবার রাতে উপজেলার বিভিন্নস্থানে আঘাত হানে ঘূর্ণিঝড় সিত্রাং। এতে গাছপালা উপড়ে গিয়ে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয় শত শত বাড়ি-ঘরের।

ঘূর্ণিঝড়ের তাণ্ডবে সবচেয়ে বেশি ক্ষতি হয়েছে লর্ড হার্ডিঞ্জ, ধলী গৌরনগর, ফরাজগঞ্জ ও রমাগঞ্জ ইউনিয়নে। তবে জেলায় ক্ষতিগ্রস্তদের তাৎক্ষণিক প্রতিবেদন পাঠানো হয়েছে। দুর্গতদের জন্য আপাতত ১০ টন চাল বরাদ্দ রয়েছে।

আ/মাহাদী

সংবাদটি শেয়ার করুন....

আমাদের ফেসবুক পাতা

আজকের আবহাওয়া

পুরাতন সংবাদ খুঁজুন

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  

এক্সক্লুসিভ আরও